Radiant Fish World Cox’s Bazar Mystery Under Ocean Aquarium Bangladesh

Radiant Fish World Cox’s Bazar Mystery Under Ocean Aquarium Bangladesh

প্রিয় পাঠক,

আসসালামু আলাইকুম,

৩ দিনের সংক্ষিপ্ত কক্সবাজার টুরে আজ আমাদের গন্তব্য ঝাউতলার Radiant Fish World যেখানে রহস্যময় সমুদ্রের স্বাদ পাওয়া যায়, উপভোগ করা যায় সামুদ্রিক আবহ। 

Radiant Fish World, Cox’s Bazar এর সম্পূর্ণ HD ভিডিও দেখুন এখানে ঃ

Radiant Fish World Cox’s Bazar সাগর তলের অজানা জগত

আমরা উঠেছি হোটেল সায়মান বিস রিসোর্ট (Sayeman Beach Resort, Cox’s Bazar) এ যেটা কলাতলীতে অবস্থিত। রিসোর্ট হতে ডলফিন মোড় হয়ে ঝাউতলার Radiant Fish World এর দুরত্ব মাত্র ৪ কি/মি এবং অটো ভাড়া ৮০ থেকে ১০০ টাকা। লাবনী বিস ও সুগন্ধা বিস হতে দুরত্ব যথাক্রমে ২ কি/মি ও ৩ কি/মি। অর্থাৎ ছোট্ট কক্সবাজার শহরের যে কোন স্থান হতে ৫০- ১০০ টাকা ভাড়া দিয়ে আপনি চলে যেতে পারেন Radiant Fish World এ, এবং উপভোগ করবেন সাগরতলের অজানা রহস্য, মাছ ও অন্যান আজব ও অসম্ভব সুন্দর প্রানী।

radiant fish world cox’s bazar location

আন্তর্জাতিক মানের Radiant Fish World এ রয়েছে গ্লাস টানেলের মধ্যে মাছসহ নানা প্রজাতির সামদ্রিক প্রাণী ও তাদের সংক্ষিপ্ত পরিচিতি। রয়েছে একটি রেস্টুরেন্ট এবং শিশুদের জন্য গেমিং জোন। ফটোগ্রাফি জোন এবং তাৎক্ষনিক প্রিণ্ট করার সুবিধা।

রেডিয়ান্ট ফিস ওয়ার্লড একদিকে যেমন বিনোদনের উৎস তেমনি প্রাণিবিদ্যা বা সমুদ্র বিজ্ঞানের ছাত্রদের জন্য রয়েছে নানা বাস্তব তথ্যচিত্র।

jelly fish in bangladesh largest aquarium

অন্যান্য যেসব সারভিস উল্লেখ করা যেতে পারে সেগুলো হল:

রেডিয়ান্ট ফিস ওয়ারল্ড এর অন্যতম আকর্ষনীয় একটি আইটেম হল Kids Game Zone যেখানে শিশুরা উপভোগ করবে নানা রকম গেমস ইভেন্টস। রয়েছে Souvenir Shop কেনাকাটার জন্য বেশ সংগ্রহ রয়েছে এখানে তবে যথারীতি দাম একটু চড়া। ছবি তুলে তাতক্ষনিক প্রিন্ট করে নিতে পারেন Digital Color Lab হতে।

দেখবেন Mini Zoo র কিছু আকর্ষনীয় সামুদ্রিক প্রাণী।

marine radiant fish aquarium
sea snakes

রয়েছে Party Center যেখানে আপনি বিভিন্ন ধরনের সামাজিক অনুষ্ঠানের জন্য ভাড়া নিতে পারেন।

3D & 9D Show এর ব্যবস্থা রয়েছে যা আপনাকে দিবে বাড়তি আনন্দ।

উপভোগ করবেন Free Wifi Zone এর ইন্টারনেট সুবিধা।

আপনার মূল্যবান জিনিস রাখার জন্য রয়েছে Luggage Locker.

সুবিস্তৃত Parking Facilities তো থাকছেই।

নানাবিধ খাবার, Fresh Juice Bar ও Bar-B-Q

ইংরেজি ডাবল এস আকৃতির কাচের টানেল দিয়ে যেতে যেতে পাবেন বিভিন্ন খাবারের দোকান। এর ফলে আপনি যখন ক্লান্ত শ্রান্ত, একটু কিছু খেয়ে নিতে পারেন।  

কক্সবাজার রেডিয়েন্ট ফিশ ওয়ার্ল্ড,

Radiant Fish World, Cox’sBazar খোলা থাকে সকাল ৯টা হতে রাত ১১ টা পর্যন্ত।

সপ্তাহে ৭ দিনই আপনাদের জন্য খোলা রাখা হয় কক্সবাজারের অন্যতম প্রধান এই আকর্ষনীয় বিনোদন কেন্দ্র Radiant Fish World.

প্রাণিবিজ্ঞান ও সমুদ্র বিজ্ঞানের ছাত্রদের জন্য রয়েছে গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষা উপকরন, তথ্য ও উপাত্ত।

বিদেশগামী কর্মীদের জন্য বাধ্যতামুলক বীমা স্বস্তির না ভোগান্তির?

বিদেশগামী কর্মীদের জন্য বাধ্যতামুলক বীমা স্বস্তির না ভোগান্তির?

বীমা সংক্রান্ত নীতিমালা : ”প্রবাসী কর্মী বীমা নীতিমালা

বীমা নীতিমালা গৃহীত হয় : ১৪ অক্টোবর ২০১৯ তারিখে।

যাদের জন্য প্রযোজ্য: বিদেশগামী কর্মী যাদের বয়স ১৮ থেকে ৫৮ বছর।

চুক্তি সম্পাদনকারী প্রতিষ্ঠান : ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড ও জীবন বীমা কর্পোরেশন।

চুক্তি সম্পাদন : ১১ ডিসেম্বর ২০১৯।

১৯ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধন করতে যাচ্ছেন বিদেশগামী কর্মীদের বাধ্যতামুলক এই বীমা।

লক্ষ্য : এই বীমার মাধমে বিদেশগামী কর্মীদের সুরক্ষা হবে বলে আশাবাদ বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদের।

life insurance authority bangladesh

বীমা প্রিমিয়াম ও বীমা পলিসি :

২ বছরের জন্য বীমা প্রিমিয়াম ৪৯০/০০ টাকা, বীমা পলিসি ২,০০,০০০/০০ টাকা।

২ বছরের জন্য বীমা প্রিমিয়াম ৯৭৫/০০ টাকা, বীমা পলিসি ৫,০০,০০০/০০ টাকা।

বীমা সুবিধার পরিমান : ২ লক্ষ টাকা। তবে ভবিষ্যতে তা বাড়তে পারে।

সরকার কর্তৃক প্রদেয় ভর্তুকি : প্রতি বছর যে সাড়ে সাত লাখ কর্মী বিদেশে পাড়ি জমান তাদের জন্য সরকারকে ভর্তুকি দিতে হবে প্রায় ৩৫ কোটি টাকা।

remittance fighters

বীমা দাবীর টাকা অনলাইন ব্যাংক হিসাবে চলে যাবে বিধায় বাংলাদেশে বীমা সেক্টরে যে অনিশ্চয়তা থাকে তা থাকবে না বলে আশ্বস্ত করেন সংশ্লিস্ট মন্ত্রী, সচিব ও ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের মহাপরিচালক ।

জীবন বীমা করপোরেশন এক বছরের জন্য এ বীমা বাস্তবায়ন করবে।

বিদেশগামী কর্মীকে ছাড়পত্র সংক্রান্ত অন্যান্য প্রক্রিয়ার সাথে তার জন্য প্রযোজ্য বীমা প্রিমিয়াম ও পরিশোধ করতে হবে এবং ছাড়পত্র গ্রহন করতে হবে বলে মন্ত্রনালয় কর্তৃক জানানো হয়।

এই বীমা হতে পারে নানা সমস্যা আর অনিশ্চয়তার জর্জরিত বিদেশগামী কর্মীদের একটুখিানি আশার আলো। তবে বীমা প্রিমিয়াম পরিশোধ সাপেক্ষে ছাড়পত্র গ্রহনের নামে তা যেন হয়রানির আরেকটি ধাপে পরিনত না হয় এই প্রত্যাশা সকলের।

তথ্যসূত্র : প্রথম আলো

কর্ণ ফুলীতে ওয়াটার বাসের যাত্রা শুরু WaterBus Service Sadarghat to Patenga Airport Chittagong

কর্ণ ফুলীতে ওয়াটার বাসের যাত্রা শুরু WaterBus Service Sadarghat to Patenga Airport Chittagong

বাস ট্রেন অনেকেই ফেল করেছেন কিন্তু ফ্লাইট মিস?

কিন্তু বিমান ফ্রাইট মিস যে একজন মানুষকে কতটা দুর্ভোগে ফেলতে পারে তা শুধু ভূক্তভোগীরাই জানেন।

প্রিয় পাঠক,

বন্দর নগরী চট্টগ্রাম হতে যেন আর কেউ ফ্লাইট মিস না করে, এবং একই সাথে টাকা ও সময় সেভ করতে পারে সেই লক্ষে জয়েন্ট ভেঞ্চারে চট্টগ্রামের সদরঘাট- টু -পটেঙ্গা ওয়ারটার বাস সার্ভিস চালু করছে সিডিডিএল এবং এসএস ট্রেডিং।

Full HD Video on Sadarghat to Patenga Airport, Chittagong:

তবে ওয়াটার বাস কিন্তু পানিতে চলা কোন বাস নয় এটি ইঞ্জিন চালিত দ্রুতগতির অত্যাধুনিক বোট।

what is waterbus
Modern High Speed Waterbus
waterbus sadarghat to patenga
Waterbus of SS Trading

হ্যা, প্রতিদিন চট্টগ্রামে যে ট্রাফিক জ্যাম বৃদ্ধি পাচ্ছে তা এড়িয়ে চট্টগ্রামের যে কোন স্থান হতে সদরঘাট-পতেঙ্গা ওয়াটার বাস সার্ভিস ব্যবহার করে কিভাবে মাত্র ৩০ মিনিটে  শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে পৌচাবেন আসুন একটু দেখে নিই।

সাথে থাকছে সদরঘাট ও পতেঙ্গায় নির্মিত অনিন্দ সুন্দর আধুনিক ০২টি Water Bus Service Terminals এর বিস্তারিত।

where to buy waterbus ticket
Sadarghat Waterbus Terminal

সদরঘাট ও পতেঙ্গা উভয় স্থানে সদ্য নির্মিত ২টি ওয়াটার বাস টার্মিনাল খুবই সুন্দর আবহ ও পরিবেশে অবস্থিত। এই ভিডিওতে আমি পুরোটাই দেখাব; সুতরাং পুরো পোষ্টটি পড়বেন ধের্য ধরে।

বড় বড় ট্রাফিক জ্যাম এড়িযে দ্রুততম সময়ে চট্টগ্রাম বিমান বন্দরে পৌছাতে আপনি চলে আসবেন Sadarghat Waterbus Terminal এ যেটি নিউমার্কেট হতে মত্র ১.১০ কিলোমিটার দুরে।

 Terminal এ পৌছিই আপনি পরিচ্ছন্ন সুন্দর রাস্তা দিয়ে একটু এগিয়ে গেলেই পাবেন অত্যাধুনিক প্যাসেন্জার লাউঞ্জ ও অফিস । ওখানে বসেই আপনি উপভোগ করতে পারবেন কর্নফুলি নদীর নয়নভিরাম দৃশ্য।

সদরঘাট ওয়াটার বাস টারমিনাল চট্টগ্রাম কিভাবে যাব
সদরঘাট ওয়াটার বাস টারমিনাল চট্টগ্রাম

যাহোক, আসুন আমরা Sadarghat Waterbus Terminal একটু ঘুরে দেখি।

এই ফাকে বলে রাখি জাপানী ইয়ামাহা ইঞ্জিনের ৩৭ ফিট দৈর্ঘের এই Waterbus, যার সিট ক্যাপাসিটি মোট ৩০টি।

Terminal হতে Waterbus এ ওঠা-নামার জন্য  Sadarghat ও Patenga উভয় পয়েন্টে তৈরী করা হয়েছে আধুনিক এবং সৌখিন জেটি।

এই জেটি দিয়েই যাত্রীরা ওয়াটার বাসে উঠবেন।

Sadarghat-Patenga Waterbus অপারেটিং কর্তৃপক্ষ সদরঘাট হতে পতেঙ্গা পর্যন্ত ভাড়া নির্ধারন করেছে ৪০০/০০ টাকা। সাথে থাকছে ফ্রি WiFi সবিধা।

সপ্তাহে ৭ দিনই চলবে এই বাস। ওয়াটার বাসের বিস্তারিত সিডিউল ঃ

সকাল ০৭টা হতে শুরু হয়ে সদরঘাট-পতেঙ্গা-সদরঘাট এই ট্রিপ চলতে থাকবে রাত ১১ টা পর্যন্ত।

প্রকৃতপক্ষে এই Waterbus সদরঘাট হতে পতেঙ্গা টার্মিনালে পৌছাতে সময় নিবে ২০ মিনিট এবং সেখান থেকে তাদেরই সাটল বাস আপনাকে পৌছে দিবে সামান্য দুরের শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে।

এই মোট ৩০ মিনিটে আপনি পৌছে যাবেন গন্তব্যে অর্থাৎ বিমান বন্দরে।

সাথে উপভোগ করবেন দারুন একটি কর্নফুলির নৌ বিহার।

নাই কোন ট্রাফিক জ্যাম, বা পরিবেশ দুষন।

আপনার লাগেজ বহন নিয়েও চিন্তা করতে হবেনা, রয়েছে তাদের নিজস্ব কর্মীবাহিনী।

হ্যা, এখন আমরা এসেছি পতেঙ্গা Waterbus টার্মিনালে।

এই টার্মিনালটি সম্পূর্ণ অংশই কর্নফুলি নদীর মধ্যে তেরী করা হয়েছে। এবং টার্মিনালের পন্টুন হতে সূনদর অধুনিক একটি জেটি তৈরী করা হয়েছে যাতে যাত্রীরা সহজ ও নিরাপদে ওয়াটার বাসে ওঠা নামা করতে পারেন।

এটি হচ্ছে সাটল বাস যাতে করে যাত্রীদের ওয়াটার বাস টার্মিনাল হতে বিমান বন্দর পর্যন্ত আনা নেওয়া করা হয়।

সদরঘাট হতে আগত যাত্রীরা এই স্থানে নামে এবং এই জেটি দিয়ে উঠে যায় টার্মিনালে এবং তারপর সাটল বাসে করে বিমান বন্দরে।

যাহোক ভিউয়ারস, নব নির্মিত ওয়াটার বাস টার্মিনালস, নয়নাভিরাম খরস্রোতা কর্নফুলি নদী এবং সবশেষে কর্নফুলী নদী ও বঙ্গোপসাগরের সংগম স্থল দেখিয়ে শেষ করতে যাচ্ছি কর্নফূলী ওয়াটার বাস সার্ভিস পর্ব। দেখা হবে অন্য কোন পর্বে। ততক্ষন ভাল থাকুন সুস্থ থাকুন।

আল্লাহহাফেজ।

আসসালামু আলাইকুম।