Radiant Fish World Cox’s Bazar Mystery Under Ocean Aquarium Bangladesh

Radiant Fish World Cox’s Bazar Mystery Under Ocean Aquarium Bangladesh

প্রিয় পাঠক,

আসসালামু আলাইকুম,

৩ দিনের সংক্ষিপ্ত কক্সবাজার টুরে আজ আমাদের গন্তব্য ঝাউতলার Radiant Fish World যেখানে রহস্যময় সমুদ্রের স্বাদ পাওয়া যায়, উপভোগ করা যায় সামুদ্রিক আবহ। 

Radiant Fish World, Cox’s Bazar এর সম্পূর্ণ HD ভিডিও দেখুন এখানে ঃ

Radiant Fish World Cox’s Bazar সাগর তলের অজানা জগত

আমরা উঠেছি হোটেল সায়মান বিস রিসোর্ট (Sayeman Beach Resort, Cox’s Bazar) এ যেটা কলাতলীতে অবস্থিত। রিসোর্ট হতে ডলফিন মোড় হয়ে ঝাউতলার Radiant Fish World এর দুরত্ব মাত্র ৪ কি/মি এবং অটো ভাড়া ৮০ থেকে ১০০ টাকা। লাবনী বিস ও সুগন্ধা বিস হতে দুরত্ব যথাক্রমে ২ কি/মি ও ৩ কি/মি। অর্থাৎ ছোট্ট কক্সবাজার শহরের যে কোন স্থান হতে ৫০- ১০০ টাকা ভাড়া দিয়ে আপনি চলে যেতে পারেন Radiant Fish World এ, এবং উপভোগ করবেন সাগরতলের অজানা রহস্য, মাছ ও অন্যান আজব ও অসম্ভব সুন্দর প্রানী।

radiant fish world cox’s bazar location

আন্তর্জাতিক মানের Radiant Fish World এ রয়েছে গ্লাস টানেলের মধ্যে মাছসহ নানা প্রজাতির সামদ্রিক প্রাণী ও তাদের সংক্ষিপ্ত পরিচিতি। রয়েছে একটি রেস্টুরেন্ট এবং শিশুদের জন্য গেমিং জোন। ফটোগ্রাফি জোন এবং তাৎক্ষনিক প্রিণ্ট করার সুবিধা।

রেডিয়ান্ট ফিস ওয়ার্লড একদিকে যেমন বিনোদনের উৎস তেমনি প্রাণিবিদ্যা বা সমুদ্র বিজ্ঞানের ছাত্রদের জন্য রয়েছে নানা বাস্তব তথ্যচিত্র।

jelly fish in bangladesh largest aquarium

অন্যান্য যেসব সারভিস উল্লেখ করা যেতে পারে সেগুলো হল:

রেডিয়ান্ট ফিস ওয়ারল্ড এর অন্যতম আকর্ষনীয় একটি আইটেম হল Kids Game Zone যেখানে শিশুরা উপভোগ করবে নানা রকম গেমস ইভেন্টস। রয়েছে Souvenir Shop কেনাকাটার জন্য বেশ সংগ্রহ রয়েছে এখানে তবে যথারীতি দাম একটু চড়া। ছবি তুলে তাতক্ষনিক প্রিন্ট করে নিতে পারেন Digital Color Lab হতে।

দেখবেন Mini Zoo র কিছু আকর্ষনীয় সামুদ্রিক প্রাণী।

marine radiant fish aquarium
sea snakes

রয়েছে Party Center যেখানে আপনি বিভিন্ন ধরনের সামাজিক অনুষ্ঠানের জন্য ভাড়া নিতে পারেন।

3D & 9D Show এর ব্যবস্থা রয়েছে যা আপনাকে দিবে বাড়তি আনন্দ।

উপভোগ করবেন Free Wifi Zone এর ইন্টারনেট সুবিধা।

আপনার মূল্যবান জিনিস রাখার জন্য রয়েছে Luggage Locker.

সুবিস্তৃত Parking Facilities তো থাকছেই।

নানাবিধ খাবার, Fresh Juice Bar ও Bar-B-Q

ইংরেজি ডাবল এস আকৃতির কাচের টানেল দিয়ে যেতে যেতে পাবেন বিভিন্ন খাবারের দোকান। এর ফলে আপনি যখন ক্লান্ত শ্রান্ত, একটু কিছু খেয়ে নিতে পারেন।  

কক্সবাজার রেডিয়েন্ট ফিশ ওয়ার্ল্ড,

Radiant Fish World, Cox’sBazar খোলা থাকে সকাল ৯টা হতে রাত ১১ টা পর্যন্ত।

সপ্তাহে ৭ দিনই আপনাদের জন্য খোলা রাখা হয় কক্সবাজারের অন্যতম প্রধান এই আকর্ষনীয় বিনোদন কেন্দ্র Radiant Fish World.

প্রাণিবিজ্ঞান ও সমুদ্র বিজ্ঞানের ছাত্রদের জন্য রয়েছে গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষা উপকরন, তথ্য ও উপাত্ত।

কর্ণ ফুলীতে ওয়াটার বাসের যাত্রা শুরু WaterBus Service Sadarghat to Patenga Airport Chittagong

কর্ণ ফুলীতে ওয়াটার বাসের যাত্রা শুরু WaterBus Service Sadarghat to Patenga Airport Chittagong

বাস ট্রেন অনেকেই ফেল করেছেন কিন্তু ফ্লাইট মিস?

কিন্তু বিমান ফ্রাইট মিস যে একজন মানুষকে কতটা দুর্ভোগে ফেলতে পারে তা শুধু ভূক্তভোগীরাই জানেন।

প্রিয় পাঠক,

বন্দর নগরী চট্টগ্রাম হতে যেন আর কেউ ফ্লাইট মিস না করে, এবং একই সাথে টাকা ও সময় সেভ করতে পারে সেই লক্ষে জয়েন্ট ভেঞ্চারে চট্টগ্রামের সদরঘাট- টু -পটেঙ্গা ওয়ারটার বাস সার্ভিস চালু করছে সিডিডিএল এবং এসএস ট্রেডিং।

Full HD Video on Sadarghat to Patenga Airport, Chittagong:

তবে ওয়াটার বাস কিন্তু পানিতে চলা কোন বাস নয় এটি ইঞ্জিন চালিত দ্রুতগতির অত্যাধুনিক বোট।

what is waterbus
Modern High Speed Waterbus
waterbus sadarghat to patenga
Waterbus of SS Trading

হ্যা, প্রতিদিন চট্টগ্রামে যে ট্রাফিক জ্যাম বৃদ্ধি পাচ্ছে তা এড়িয়ে চট্টগ্রামের যে কোন স্থান হতে সদরঘাট-পতেঙ্গা ওয়াটার বাস সার্ভিস ব্যবহার করে কিভাবে মাত্র ৩০ মিনিটে  শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে পৌচাবেন আসুন একটু দেখে নিই।

সাথে থাকছে সদরঘাট ও পতেঙ্গায় নির্মিত অনিন্দ সুন্দর আধুনিক ০২টি Water Bus Service Terminals এর বিস্তারিত।

where to buy waterbus ticket
Sadarghat Waterbus Terminal

সদরঘাট ও পতেঙ্গা উভয় স্থানে সদ্য নির্মিত ২টি ওয়াটার বাস টার্মিনাল খুবই সুন্দর আবহ ও পরিবেশে অবস্থিত। এই ভিডিওতে আমি পুরোটাই দেখাব; সুতরাং পুরো পোষ্টটি পড়বেন ধের্য ধরে।

বড় বড় ট্রাফিক জ্যাম এড়িযে দ্রুততম সময়ে চট্টগ্রাম বিমান বন্দরে পৌছাতে আপনি চলে আসবেন Sadarghat Waterbus Terminal এ যেটি নিউমার্কেট হতে মত্র ১.১০ কিলোমিটার দুরে।

 Terminal এ পৌছিই আপনি পরিচ্ছন্ন সুন্দর রাস্তা দিয়ে একটু এগিয়ে গেলেই পাবেন অত্যাধুনিক প্যাসেন্জার লাউঞ্জ ও অফিস । ওখানে বসেই আপনি উপভোগ করতে পারবেন কর্নফুলি নদীর নয়নভিরাম দৃশ্য।

সদরঘাট ওয়াটার বাস টারমিনাল চট্টগ্রাম কিভাবে যাব
সদরঘাট ওয়াটার বাস টারমিনাল চট্টগ্রাম

যাহোক, আসুন আমরা Sadarghat Waterbus Terminal একটু ঘুরে দেখি।

এই ফাকে বলে রাখি জাপানী ইয়ামাহা ইঞ্জিনের ৩৭ ফিট দৈর্ঘের এই Waterbus, যার সিট ক্যাপাসিটি মোট ৩০টি।

Terminal হতে Waterbus এ ওঠা-নামার জন্য  Sadarghat ও Patenga উভয় পয়েন্টে তৈরী করা হয়েছে আধুনিক এবং সৌখিন জেটি।

এই জেটি দিয়েই যাত্রীরা ওয়াটার বাসে উঠবেন।

Sadarghat-Patenga Waterbus অপারেটিং কর্তৃপক্ষ সদরঘাট হতে পতেঙ্গা পর্যন্ত ভাড়া নির্ধারন করেছে ৪০০/০০ টাকা। সাথে থাকছে ফ্রি WiFi সবিধা।

সপ্তাহে ৭ দিনই চলবে এই বাস। ওয়াটার বাসের বিস্তারিত সিডিউল ঃ

সকাল ০৭টা হতে শুরু হয়ে সদরঘাট-পতেঙ্গা-সদরঘাট এই ট্রিপ চলতে থাকবে রাত ১১ টা পর্যন্ত।

প্রকৃতপক্ষে এই Waterbus সদরঘাট হতে পতেঙ্গা টার্মিনালে পৌছাতে সময় নিবে ২০ মিনিট এবং সেখান থেকে তাদেরই সাটল বাস আপনাকে পৌছে দিবে সামান্য দুরের শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে।

এই মোট ৩০ মিনিটে আপনি পৌছে যাবেন গন্তব্যে অর্থাৎ বিমান বন্দরে।

সাথে উপভোগ করবেন দারুন একটি কর্নফুলির নৌ বিহার।

নাই কোন ট্রাফিক জ্যাম, বা পরিবেশ দুষন।

আপনার লাগেজ বহন নিয়েও চিন্তা করতে হবেনা, রয়েছে তাদের নিজস্ব কর্মীবাহিনী।

হ্যা, এখন আমরা এসেছি পতেঙ্গা Waterbus টার্মিনালে।

এই টার্মিনালটি সম্পূর্ণ অংশই কর্নফুলি নদীর মধ্যে তেরী করা হয়েছে। এবং টার্মিনালের পন্টুন হতে সূনদর অধুনিক একটি জেটি তৈরী করা হয়েছে যাতে যাত্রীরা সহজ ও নিরাপদে ওয়াটার বাসে ওঠা নামা করতে পারেন।

এটি হচ্ছে সাটল বাস যাতে করে যাত্রীদের ওয়াটার বাস টার্মিনাল হতে বিমান বন্দর পর্যন্ত আনা নেওয়া করা হয়।

সদরঘাট হতে আগত যাত্রীরা এই স্থানে নামে এবং এই জেটি দিয়ে উঠে যায় টার্মিনালে এবং তারপর সাটল বাসে করে বিমান বন্দরে।

যাহোক ভিউয়ারস, নব নির্মিত ওয়াটার বাস টার্মিনালস, নয়নাভিরাম খরস্রোতা কর্নফুলি নদী এবং সবশেষে কর্নফুলী নদী ও বঙ্গোপসাগরের সংগম স্থল দেখিয়ে শেষ করতে যাচ্ছি কর্নফূলী ওয়াটার বাস সার্ভিস পর্ব। দেখা হবে অন্য কোন পর্বে। ততক্ষন ভাল থাকুন সুস্থ থাকুন।

আল্লাহহাফেজ।

আসসালামু আলাইকুম।

Chattogram Rangamati Bike Tour Via Kaptai With Gopro Hero 8 Black: Kayaking Session| Panaroma Zoom

Chattogram Rangamati Bike Tour Via Kaptai With Gopro Hero 8 Black: Kayaking Session| Panaroma Zoom

প্রিয় পাঠক,

হেমন্তের মিষ্টি সকালে আজ আমাদের গন্তব্য বাইক ভ্রমণে চট্টগ্রাম হতে কাপ্তাই বাধ হয়ে রাঙ্গামাটি।

আসসালামু আলাইকুম।

Travel To Life এর পক্ষে আমি MN Hossain.

চট্টগ্রামের বায়েজিদ এলাকার বায়েজিদ রেস্টুরেন্ট এর নিকট হতে আমাদের বাইক চলা শুরু।

cafe bayezid, bayezid, chittagong

সকাল সাড়ে সাতটা।

আমরা আছি বায়েজিদ এলাকার “ক্যাফে বায়েজিদ” Cafe Bayezid রেস্টুরেন্টে।

উদ্দেশ্য নিজেদেরকে একটু ফুয়েলিং করে নেওয়।

জ্বালানী মন্দ নয়, খাশির নলার নিহারী, সুপ আর নানরুটি; কফি তো আছেই।

cafe at kaptai

আর বাইকের জ্বালানী গত কালই ফুল লোড করা হয়েছে।

So lets start our Journey form Chattogram to Rangamati Via Kaptai.

আমরা ৬ জন বাইকে রওনা হলাম কাপ্তাই হয়ে রাঙ্গামাটির পথে। উদ্দেশ্য সড়কপথে কাপ্তাই-রাঙ্গামাটির সৌন্দরয  নিজেদের মত উপভোগ করতে করতে এগিয়ে যাওয়া।  

আমরা এগিয়ে যাচ্চি কাপ্তাইয়ের আকাবাকা পাহাড়ী পথ বেয়ে।

how to arrange a tour to kaptai with bike

সামনে পড়ল বিজিবি পরিচালিত “Panaroma Zoom Restaura” এবং “BGB Kayak Club”

তো, একটু ঘুরে গেলে মন্দ হয় না। কায়াকিং এর কথা বলতেই সবাই রাজি হয়ে গেল।

panaroma zoom restaurant kaptai
BGB Kayaking Club, Kaptai, Rangamati

bike tour to kapatai

চলে আসলাম “Panaroma Zoom Restaura” য়। বাইক চালিয়ে ক্লান্ত সবাই আবার চা খেতে খেতে ঘুরছি Panaroma –র আসেপাশে।

hotel at kaptai

rent hotel at kaptai
dhaka to rangamati to kaptai tour

সবুজ পাহাড়ী গাছে ঘেরা স্বচ্চ নীল পানির লেক সত্যিই মন কেড়ে নেয়।

kaptai pani biddut

গাছের পাতার ফাঁকে লেক যেন আমাদের হাতছানি দিয়ে ডাকছে তাই লাইফ জ্যাকেট পরে নেমে পড়লাম কায়াকিং করার জন্য । যদিও লেকে সরাসরি সাতার কাটা নিষেধ।

bd moto vlogs

সবাই নেমে পড়ি প্যানারোমা জুম রেস্তোরা/বিজিবি কায়াকিং ক্লাবে কায়াক করতে!!

kaptai hydro electricity project

কায়াকিং প্রতি ঘন্টায় ২০০/০০ টাকা, প্রতি বোটে ২ জন করে।

safety for kayaking

আমরা সবাই সাতার জানি তাই কোন ভয় কাজ করছিল না।

journey by boat at kaptai lake
Travel To Life
bike ride Bangladesh
sajek to rangamati by bike

লক্ষ্য করলাম লেকে জেলেরা মাছ ধরছে জাল দিয়ে। জেলেদের সাথে কথা বলে জানলাম এই মুহুর্তে তারা ”কাসকি” মাছ ধরছে; কেজি মাত্র ১৫০/০০ টাকা।

যাহোক রাঙ্গামাটি ভ্রমণের মাঝপতে আমাদের এই হঠাৎ থামা টা বেশ উপভোগ্য ছিল; আশা করি ভিউয়ারস আপনারাও উপভোগ করছেন।

কথা হবে রাঙ্গামাটি ভ্রমণের অন্য কোন পর্বে, ততক্ষন ভাল থাকুন, ভ্রমণ করুন, সুস্থ থাকুন।

চাইলে ঘুরে আসতে পারেন আমাদের ফেসবুক পেজ এ : Travel2Life

আছে চমৎকার সব ভ্রমণ ভিডিও ও গাইড: Travel To Life

Tweet করতে পারেন : Travel2Life

আল্লাহ হাফেজ।

আসসালামু আলাইকুম।

মাসজিদ আল-হারম এলাকার কবুতর বিশেষ ক্ষমতার অধিকারী : কথাটি সত্য নয়

মাসজিদ আল-হারম এলাকার কবুতর বিশেষ ক্ষমতার অধিকারী : কথাটি সত্য নয়

আমরা যখন হেরেম শরীফের আশপাশে ঘোরাফেরা করেছি, নামায আদায় করেছি, কেনাকাটা করেছি তখন কাবা শরীফের জাস্ট বাইরের যে চত্বর সেখানে দেখেছি অসংখ্য কবুতর ঘোরাফেরা করে। কবুতর গুলোকে মুসল্লীরা গম এবং অন্যন্য বিভিন্ন ধরনের খাবার দিয়ে থাকে। কবুতরগুলি সে খাবার খায় এবং এখানেই ম্যাক্সিমাম সময় অবস্থান করে।

beautiful pigeon in makkah saudi arabia 2019

শুধুমাত্র কবুতরের নিরাপত্তা এবং ভালোভাবে থাকার জন্য সেখানে কিছু স্পেশাল টাইপের তাঁবুর ব্যবস্থা করা হয়েছে। এগুলো মসজিদ আল-হারম এর বাহিরেই অবস্থিত। আবার প্রধান গেটের বাইরে চত্তরে যেখানে ৫ ওয়াক্ত জামাতে মুসল্লী ও হাজী সাহেবরা নামায আদায় করে সেই জায়গাগুলিতে এই অসংখ্য কবুতর দেখা যায়।

peace pigeons near masjid ul haram makkah

তবে এই কবুতরগুলি কে কেন্দ্র করে বিভিন্ন ধরনের জনশ্রুতি আছে যেমন কেউ মনে করেন যে, এই কবুতর বিশেষ ক্ষমতার অধিকারী। কবুতরের ফেলে দেয়া খাবার খেলে বিভিন্ন রোগ ভালো হয়, বিভিন্ন নিয়তে খেলে বা সেটা ব্যবহার করলে তার আশা পূরণ হয়।

pigeons in makkah,
makkar kobutor

কেউ বলেন যে মক্কার এই কবুতরের খাবার খেলে সন্তান হয়। আসলে এই বিষয়গুলি সবই গুজব এবং অসত্য কথা। তবে এটা ঠিক যে, মক্কার যে হারাম এরিয়া এই এরিয়ার মধ্যে কোন ধরনের জীবজন্তু হত্যা করা হয় না বিধায় এখানে এই কবুতর গুলি কে হত্যা করা হয় না বরং তাদেরকে পরম যত্নে রাখা হয় এবং খাদ্য খাবার দেওয়া হয়।

Masjid Al-haram

 আরো একটা জনশ্রুতি আছে যে মক্কার কাবা শরীফের উপর দিয়ে কখনো কোন প্রাণী উড়ে যায় না, বা বিমান চলে না আসলে এগুলো সবই কল্পকাহিনী বা গুজব।

pigeon field in makkah

 বিমান চলার একটা নির্দিষ্ট রুট থাকে বিধায় ওই নির্দিষ্ট রুটের বাহিরে বিমান চলাচল করতে পারে না। সুতরাং সৌদি কর্তৃপক্ষ যেহেতু কাবার উপর দিয়ে চলার মত বিমানের কোন রুট রাখে নাই, তাই বিমান চলে না। কিন্তু আমি নিজে সেখানে অবস্থান করার সময় লক্ষ্য করেছি এবং ভালভাবে লক্ষ্য করেছি যে কবুতর ও অন্যান্য পাখি ছাড়াও প্রজাপতি কাবা শরীফ এর উপর দিয়ে উড়ে যায়। এমনও দেখেছি যে কাবার গিলাফের উপর ছোট বড় বিভিন্ন ধরনের প্রজাপতি পোকামাকড় এখানে এসে পড়ে এবং সেখানে এই প্রজাপতি এবং পোকামাকড় তাড়ানোর জন্য সবসময়ই পরিচ্ছন্নতাকর্মী নিয়োজিত থাকে।

কাবা শরীফের উপর দিয়ে কি পাখি উড়ে

 তারা এই ছোট বড় প্রাণী গুলি করে হত্যা করে না জাস্ট একটা কিছু দিয়ে ওখান থেকে দূরে সরিয়ে দেয়। যাহোক, মক্কার কবুতর সম্বন্ধে আলোচনা যাই থাকুক না কেনএই কবুতরের বিশেষ কোনো ক্ষমতা নেই। এটার উচ্ছিষ্ট খাবার খেলে বা ব্যবহার করলে আপনি উপকৃত হবেন, কোন রোগ সেরে যাবে, নিয়ত পূরণ হবে এসব  কথা সত্য না।

 তবে মক্কা, মদিনা তথা সৌদি আরব একটি শুষ্ক আবহাওয়ার পরিচ্ছন্ন দেশ যেখানে অসংখ্য কবুতর দেখা যায়। সৌদি আরবের যেসব জায়গাতে আমি গিয়েছি, হেরা পর্বত সহ অন্যান্য স্থানে গিয়েছি সব জায়গাতেই অসংখ্য কবুতর আমি দেখেছি।

ময়নামতি জাদুঘর কোটবাড়ি কুমিল্লা ভ্রমণ

ময়নামতি জাদুঘর কোটবাড়ি কুমিল্লা ভ্রমণ

প্রিয় পাঠক,

আসসালামু আলাইকুম।

স্বাগত জানাচ্ছি কুমিল্লার ময়নামতি জাদুঘর ভ্রমণ এপিসোডে।

ময়নামতি জাদুঘরের অবস্থান: কুমিল্ল শালবন বিহারের সাথে সংলগ্ন। আপনি ঢাকা চট্টগ্রাম যে কোন স্থান হতে কুমিল্লা ক্যান্টনমেন্ট এসে সেখান থেকে রিক্সা, সিএনসি বা অটোতে করে চলে আসতে পারেন।

Full HD Video on Moinamati Museum, Comilla.

ময়নামতি জাদুঘরে প্রবেশ মূল্য মাথাপিছু ২০ টাকা করে টিকেট কেটে আমরা প্রবেশ করছি ময়নামতির এই নৃতাত্বিক জাদুঘরে। আমরা দলে আছি আছি মোট ১০ জন।

ময়নামতি জাদুঘর
Ticket Price of Moinamati Museum, Comilla

কুমিল্লা জাদুঘরের প্রতিষ্ঠা কাল: ১৯৬৫ সালে কোটবাড়ি কুমিল্লার শালবন বিহারের পাশে।

lok shilpa jadughar
জাদুঘরে প্রবেশের পূর্বে আমাদের ক’জন
moynamoti jadughor
জাদুঘরের ভিতরের দৃশ্য

জাদুঘর প্রতিষ্ঠার উদ্দেশ্য: শ্রীভবদের মহাবিহার, কোটিলা মুড়া, চারপত্র মুড়া, রূপবানমুড়া, ইটাখোলা মুড়া, আনন্দ বিহার, রানীর বাংলা, ও ভোজ রাজার বাড়ি বিহার খননকালে যে সমস্ত প্রাচী কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ পুরাসামগ্রী সন্ধানপাওয়া যায় সেসব বস্তু সংরক্ষণ ও প্রদর্শন।

moynamoti jadughor

কুমিল্লা জাদুঘরের টিকেট মূল্য: জাদুঘরের প্রধান গেইট হতেই আপনি ২০ টাকা দিয়ে টিকেট করতে পারেন। তবে ৫ বছরের কম বয়সী শিশুদের টিকেট লাগে না। প্রাথমিক পর্যায়ের শিশুদের জন্য ৫ টাকা, সার্কভূক্ত দেশের ভিজিটরদের টিকেট ১০০ টাকা আর অন্য দেশের জন্য ২০০ টাকা।

এই রেট বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক পরিচালিত সবগুলি নৃতাত্বিক জাদুঘরের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য।

ময়নামতি জাদুঘর ছবি

আসুন জেনে নিই ময়নামতি জাদুঘর বন্ধ-খোলার সময়সূচীঃ

ময়নামতি জাদুঘর গ্রীষ্মকালে খোলা পাবেন সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত।

নামাজ ও দুপুরের খাবারের জন্য দুপুর ১টা থেকে ১.৩০ পর্যন্ত আধ ঘণ্টার জন্যে বন্ধ থাকে।

জাদুঘর শীতকালে সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত খোলা রাখা হয়।

আর শুক্রবারে জুম্মার নামাযের জন্যে সাড়ে বারোটা থেকে তিনটা পর্যন্ত বন্ধ থাকে।

সাধারণ ছুটি রবিবার এবং সোমবার বেলা  ২.০০ থেকে   খোলা থাকে। এছাড়াও সরকারী কোন বিশেষ দিবসে জাদুঘর পরিদর্শন করতে পারেন ।

সমগ্র জাদুঘরে মোট প্রদর্শনী বক্স/বস্ত রয়েছে ৪২টি।

comilla mainamati shalbon bihar

প্রদর্শনী আধারগুলোতে প্রত্মতাত্ত্বিক স্থান খননের উম্মোচিত স্থাপত্যসমৃদ্ধ ধ্বংসাবশেষের ভূমি-নকশা, ধাতু লিপি ফলক, প্রাচীন মুদ্রা, মৃন্ময় মুদ্রক-মুদ্রিকা, পোড়া মাটির ফলক, ব্রোঞ্জ মূর্তি, পাথরের মূর্তি, লোহার পেরেক, পাথরের গুটিকা, অলংকারের অংশ এবং ঘরে ব্যবহৃত মাটির হাড়ি পাতিল প্রদর্শিত হচ্ছে।

comilla buddha bihar

এছাড়া আধারের ফাঁকে ফাঁকে মেঝের উপর জাদুঘর ভবনের বিভিন্নস্থানে কিছু পাথর এবং ব্রোঞ্জ মূর্তিও প্রদর্শনের জন্য রাখা হয়েছে। এসব মূর্তির কয়েকটি প্রাচীন সমতটের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে সংগৃহীত।

comilla tourism,

জাদুঘরে প্রদর্শনের উল্লেখযোগ্য পাথর ও ব্রোঞ্জমূর্তি হচ্ছে- বিভিন্ন ধরনের পাথরের দন্ডায়মান লোকোত্তর বুদ্ধ মূর্তি, ত্রি বিক্রম বিষ্ণুমূর্তি, তারা মূর্তি, মারীছী মূর্তি, মঞ্জুরের মূর্তি, পার্বতী মূর্তি, হরগৌরীমূর্তি, নন্দী মূর্তি, মহিষমর্দিনী মূর্তি, মনসা মূর্তি, গনেশ মূর্তি, সূর্যমূর্তি, হেরুক মূর্তি এবং ব্রোঞ্জের বজ্রসত্ত্ব মূর্তি।

এক নজরে কুমিল্লা
best place in comilla

এছাড়াও ব্রোঞ্জের ছোট-বড় আরও মূর্তি রয়েছে। এ জাদুঘরে রয়েছে ব্রোঞ্জের তৈরী বিশালাকায় একটি ঘন্টা। যার ওজন ৫শ’ কেজি। এর ব্যাস ৮৪ সেন্টিমিটার। এর উপরের বেড়িসহ উচ্চতা ৭৪ সেন্টিমিটার।

শালবন বিহার কুমিল্লা
lok shilpa jadughar

এ জাদুঘরের আধারে সুরক্ষিত রয়েছে ময়নামতিতে পাওয়া স্বর্ণ ও রৌপ্য মুদ্রা। পোড়ামাটির ফলক। ব্রোঞ্জ ও তামার তৈরী সামগ্রী। লোহার তৈরী সামগ্রী। মাটির তৈরী বিভিন্ন প্রকারের খেলনা। কাঠের কাজের নিদর্শন। তুলট কাগজে লেখা প্রাচীন হস্তলিপির পান্ডুলিপি। বিভিন্ন নমুনার মৃৎপাত্র ইত্যাদি।

comilla city tour

Our Social Channels:

https://www.youtube.com/channel/UCf7V6mErZD00G4UAlXMbSiA?

https://www.facebook.com/Travell2Life
https://www.instagram.com/travell2life/
https://twitter.com/Travell2Life
https://www.pinterest.com/Travel2Life/